ট্রানজিস্টর দিয়ে মিউজিক পালস এলইডি

1
1253
ট্রানজিস্টর দিয়ে মিউজিক পালস এলইডি
ট্রানজিস্টর দিয়ে মিউজিক পালস এলইডি

সূচনাঃ

মিউজিক আমরা সবাই কম বেশি পছন্দ করি। কেউ পছন্দ করি বেশি বেজ, কেউ বেশি ট্রেবল আবার কেউ দুইটাই। আর আমরা প্রায়শই বিভিন্ন পার্টি, ক্লাব বা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দেখে থাকি যে মিউজিক এর বেজ এর তালেতালে কিছু লেজার লাইট, এলইডি লাইট জ্বলছে আর নিভছে যাকে আমরা মিউজিক পালস নামে চিনি (অন্য নাম মিউজিক্যাল স্ট্রোব লাইট – Musical Strobe Light)।  আজ সেরকম একটিই মজার জিনিস বানানো শিখব। তবে চলুন আর দেরি না করে কাজে লেগে পড়ি

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

  • ১। TIP 31 Transistor
  • ২। কিছু
  • ৩। ৯ ভোল্ট ব্যাটারি

মিউজিক পালস এলইডি ডায়াগ্রামঃ

ট্রানজিস্টর দিয়ে মিউজিক পালস স্ট্রোব লাইট সার্কিট ডায়াগ্রাম
দিয়ে মিউজিক পালস স্ট্রোব লাইট ডায়াগ্রাম

কিছু সমস্যা ও তা দূরীকরণঃ

এটি খুব ছোট একটি । তাই তেমন কোন সমস্যা থাকার কথা না। আর তাছাড়াও এই টি একাধিক বার পরীক্ষা করা। তার পরেও যদি কোন সমস্যা হয়েই থাকে তাহলে প্রথমে ব্যাটারী চেক করে দেখুন ফুল চার্জ আছে কিনা। আর কানেকশন গুলো আবার ভাল করে পরীক্ষা করুন। কিছু সময় লক্ষ করা যায় সব ের লেগ গুলো নেটের ডায়াগ্রামের সাথে মিল পড়ে না। প্রয়োজনে উলটো করে লাগিয়ে দেখতে পারেন। এর বাইরেও কোন সমস্যা থাকলে কমেন্ট করুন উত্তর দিতে চেষ্টা করবো।

কাজের নির্দেশনাঃ

নিচে দেওয়া ডায়াগ্রাম অনুযায়ী ে কানেকশন দিতে হবে। আর যে কোন ডিভাইসের অডিও আউটপুট থেকে যেকোন চ্যানেল যেমনঃ বাম চ্যানেল (Left Channel) অথবা ডান চ্যানেল (Right Channel) ব্যবহার করতে পারেন।

উদাহরণঃ

যদি এম্পলিফায়ার এর বাম দিকের চ্যানেল (Left Channel) ব্যবহার করতে চান সেক্ষেত্রে শুধু বাম অডিও পিন থেকে আউট আর গ্রাউন্ড নিলেই হয়ে যাবে।

এলইডি এর সাইজঃ

যদি ৩ টি সাদা এলইডি ব্যবহার করতে চান তাহলে ৯ ভোল্টই যথেষ্ঠ। তবে এখানে এলইডি বাড়িয়ে ভোল্টেজও বাড়িয়ে দিতে পারবেন। তবে ম্যাক্সিমাম ৪০ ভোল্ট পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারবেন একটি ের ক্ষেত্রে। সার্কিট বড় করতে চাইলে ব্রিজ পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন। আমি ৩ টি সাদা ১ ওয়াটের এলইডি সিরিজে ব্যবহার করেছিলাম।

উপকারিতাঃ

এটি আপনার ঘরের সৌন্দর্য বর্ধনে ব্যবহার করতে পারেন। তাছাড়া কোন পার্টি বা অনুষ্ঠানে আপনার বানানো মিউজিক পালস হিসেবে ব্যবহার করতেই পারেন নিজের বানানো জিনিস হিসেবে। বিভিন্ন কালারের নিওন টাইপ ব্যবহার করলে ভাল ফল পাওয়া যাবে।

আবশ্যিক বিষয়ঃ

এই কাজের জন্য অবশ্যই ভাল মানের তার ব্যবহার করা আবশ্যক। তাছাড়া ের অডিও আউট-পুট থেকে ভাল ব্যাক-আপ নাও পেতে পারেন। আর এটি কম্পিউটার বা অডিও আউট-পুটে মোটামুটি হাই ভোল্টেজ আসে এরকম ডিভাইসের সাথে লাগালে ভাল ফলাফল পাবেন।

নোটঃ এই সার্কিট ব্যবহার করলে ডিভাইসের একটি চ্যানেল সরাসরি এই সার্কিটে আসবে। কাজেই অপর একটি চ্যানেল শুধু ব্যবহার করা যাবে গান শুনবার জন্য।

সমাপ্তিঃ

আজ এ পর্যন্তই । আগামি দিন আরও নতুন ও চমকপ্রদ জিনিস নিয়ে আসব। আর এই প্রজেক্ট টিউটিরিয়াল টি পড়ে ভাল লাগলে নিচে লাইক এবং শেয়ার করতে ভুলবেন না। আর আমাদের ওয়েবসাইটের প্রশ্ন/উত্তর সেকশনে আপনার যেকোন সমস্যার কথা সরাসরি তুলে ধরতে পারেন। আমাদের স্পেশালিস্টরা সব সময় আপনার সমস্যা সমাধানের জন্য প্রস্তুত।

স্বীকারক্তিঃ

এই ডায়াগ্রামটি নেট থেকে নেয়া। তবে সার্কিট টি আমি নিজে বানিয়ে ব্যবহার করেছি। আনন্দও পেয়েছি অনেক। তাই ভাবলাম আমার আনন্দ আপনাদের মাঝে শেয়ার করি। আপনাদের কেও আনন্দিত করবে আমি নিশ্চিত। তাই দেরি না করে বানিয়ে ফেলুন এই মিউজিক পালস এলইডি।  ধন্যবাদ সকলকে।

ঘুরে আসুন আমাদের ইলেকট্রনিক্স শপ থেকেঃ
ঘুরে আসুন আমাদের ইলেকট্রনিক্স শপ থেকেঃ
ঘুরে আসুন আমাদের ইলেকট্রনিক্স শপ থেকেঃ
ঘুরে আসুন আমাদের ইলেকট্রনিক্স শপ থেকেঃ

1টি কমেন্ট

কমেন্ট প্রদান

Please enter your comment!
Please enter your name here